আজ শনিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০৪:২১ পূর্বাহ্ন logo

শনিবার, ১৭ জানুয়ারী ২০১৫, ১২:৪২ পূর্বাহ্ন

বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বেও লাখো মুসল্লির জুমার নামাজ আদায়

দেওয়ান রফিকুল ইসলাম মাখন, টঙ্গী থেকে :

টঙ্গী  : ২০দলীয় জোটের অবরোধ কর্মসূচি ও শতবাধা বিপত্তি উপেক্ষো করে আল্লাহকে রাজিখুশি করানোর জন্য ব্যাপক ধর্মীয় উদ্দীপনা, ব্যাকুলতা ও ভাবগাম্ভীর্যপূর্ণ পরিচ্ছন্ন পরিবেশে শুক্রবার বাদ ফজর ভারতের মাওলানা ইসমাইল গোদরাওয়ালার আ’ম বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হয়েছে বিশ্ব ইজতেমার ৩ দিনের দ্বিতীয় পর্ব। রাজধানী ঢাকার সন্নিকটে কহর দরিয়াখ্যাত টঙ্গীর তুরাগ নদের তীরে তাবলীগ জামাতের বার্ষিক মহাসম্মেলন বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনে শুক্রবার অনুষ্ঠিত হয় বিশ্বের বৃহত্তম জুমার জামাত। ইজতেমায় অংশগ্রহণকারী লাখ লাখ মুসল্লি ছাড়াও রাজধানীসহ পার্শ্ববর্তী এলাকার হাজার হাজার মানুষ এই বৃহত্তম জুমার জামাতে নৌপথসহ বিভিন্ন যানবাহন ও পায়ে হেঁটে শরীক হন। আল্লাহ আকবার ধ্বনিত মুখরিত হয়ে উঠে টঙ্গীর তুরাগতীর। শুক্রবার অনুকুল আবহাওয়া ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় থাকায় ইজতেমায় আগত মুসল্লিগণ স্বাচ্ছন্দে তাবলীগ জামাতের শীর্ষমুরুব্বিদের বয়ান শুনছেন এবং এবাদত বন্দেগীতে মশগুল রয়েছেন।শনিবার ইজতেমার দ্বিতীয় দিন।  রোববার দুপুরের আগে কাঙ্ক্ষিত আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে এবারের বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের সমাপ্তি ঘটবে। রোববার ১৮ জানুয়ারি জোহরের পূর্বে বেলা সাড়ে ১০ টা থেকে ১২ টার মধ্যে আখেরী মোনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব তথা এবারের বিশ্ব ইজতেমার ৫০তম আসর।  
শুক্রবার  সকাল থেকেই সর্বস্তরের মুসলমানরা জুমার জামাতে শামিল হওয়ার জন্য টুপি, পাঞ্জাবী পরে জায়নামাজ হাতে ইজতেমা মাঠের দিকে ছুটতে থাকেন। দেশ বিদেশের অগণিত মুসল্লিদের সাথে একই জামাতে শরীক হয়ে নামাজ আদায় করার মাধ্যমে বেশি সাওয়াব হাসিলের উদ্দেশ্যে সকলের মধ্যে দেখা গেছে ব্যাকুলতা। যতই সময় গড়াতে থাকে ততই মুসল্লিদের ঢল আঁছড়ে পড়ে তুরাগের তীরে। শিশু কিশোর থেকে শুরু করে সব বয়সী মানুষের সমাবেশ ঘটে জুমার জামাতে। ইজতেমা ময়দান স্থান সংকুলান না হওয়ায় টঙ্গী উত্তরে টঙ্গীর চেরাগআলী, পূর্বে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক ষ্টেশনরোড, দক্ষিণে আব্দুল্লাপুর, পশ্চিমে কামারপাড়ার ফুটপাতের রাস্তা ও যে যেখানে পেরেচেন হোগলাপাটি ও পত্রিকা বিছিয়ে জুমার নামাজে শরীক হয়েছেন। ইজতেমা মাঠে জুমার জামাত সুবিশাল প্যান্ডেলের গন্ডি ছাড়িয়ে বিস্তৃতি লাভ করে চারপাশে। জুমার জামাতে ইমামতি করেন ঢাকার কাকরাইল মসজিদের খতীব হাফেজ মাওলানা যুবায়ের।
বিশ্ব ইজতেমায় যোগ দিতে দেশ-বিদেশ থেকে মুসল্লিদের টঙ্গী মুখি স্রোত অব্যাহত রয়েছে। বহুল কাঙ্খিত আখেরী মোনাজাত পর্যন্ত এ স্রোত আরো প্রবল হবে। তুরাগ তীরবর্তী বিশাল প্রান্তরে নির্মিত পাটের চট ও লাইলন কাপড়ের সামিয়ানা ইতোমধ্যেই কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে। ফলে নতুন করে যারা আসছেন তাদেরকে নিজ উদ্যোগে তাবু টানিয়ে অবস্থান নিতে হচ্ছে। গত দু’দিনে শীতের তীব্রতা কম থাকায় মুসল্লিদের ভোগান্তি কিছুটা কম হলেও ধুলায় ধূসরিত গোটা ইজতেমা এলাকায় চলাচল কষ্টসাধ্য হয়ে পড়েছে। ওয়াসা এবং ফায়ার সার্ভিসের উদ্যোগে প্রধান প্রধান সড়ক ও বিদেশী মুসল্লিদের চলাচলের পথে পানি ছিটানো হলেও তা প্রয়োজনের তুলনায় অপ্রতুল। একদিকে পানি ছিটিয়ে যাচ্ছে ওয়াসার গাড়ি অন্যদিকে মুহুর্তেই আবার ধুলায় ধূসর হচ্ছে রাস্তুাগুলো। ফলে চিকিৎসা কেন্দ্রগুলোতে ভিড় করছে সর্দি, কাশি ও পেটের পীড়া নিয়ে হাজারো মুসল্লিদের।
দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনে যারা বয়ান করলেন : শুক্রবার থেকে শুরু হয়েছে তিন দিন ব্যাপি বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব। বাদ ফজর ভারতের মাওলানা ইসমাইল গোদরাওয়ালার আ’ম বয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্বইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব শুরু হয়। এ পর্বে ৩৪ জেলার মুসল্লিরা যোগ দিচ্ছেন। এর জন্য ময়দানকে ৩৯ খিত্তায় ভাগ করা হয়েছে। বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিন বাদ জুম্মা মাওলানা মুছা আহমেদ, বাদ আছর মাওলানা জাহুর ও বাদ মাগরিব দিল্লির মাওলানা সা’দ আহমেদ বয়ান করেন।
দ্বিতীয় পর্বের প্রথম দিনের বয়ান : জুমাপূর্ব আলেম ওলামা, শিক্ষক-ছাত্রদের উদ্দেশ্যে হেদায়েতি বয়ানে মাওলানা সা’দ আহমেদ বলেন, যেখানে কোরআন হাদিসের তা’লীম করা হয় তখন তা’জীমের সাথে মোতয়াজ্জু হয়ে শুনতে হবে। কোরআন ও হাদিস আদবের সাথে শোনা উচিত। কোরআনে যতগুলো শব্দ রয়েছে প্রতিটি শব্দের নূর আল্লাহর খাজানার মধ্যে জমা রয়েছে। কোরআনের তালিম আজমতের সাথে শুনলে আল্লাহ খুশি হয়ে নূর আমাদের দিলে ঢেলে দিবেন।’ উপস্থিত ছাত্রদের উদ্দেশ্যে বলা হয়, ছাত্রদের জ্ঞানের কমতি থাকলে জেহান (জ্ঞান) বাড়ানোর জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া করতে হবে। বয়ানে বলা হয়-আজকাল আমাদের ছাত্রদের মাঝে প্রকৃত জ্ঞানের খুব অভাব। আর অভাব পূরণের জন্য আল্লাহর কাছে দোয়া না করে আমেরিকা প্রবাসী ভাই বন্ধুর কাছে ওষুধের তালাশ করি। প্রকৃত কথা হলো- কোন দাওয়া বা ওষধে জ্ঞান বাড়াতে পারবে না। জ্ঞানের মালিক একমাত্র আল্লাহ তা’য়ালা। কোন কিছু চাইতে হলে তাঁর কাছেই চাইতে হবে।  জুমাপূর্ব বয়ানে হাফেজ মাওলানা যোবায়ের বলেন,  গরীরেব জন্য ঈদের নামাজের চেয়েও উত্তম ইবাদত হলো শুক্রবারের জু’মার নামাজ। এদিনে আল্লাহর কাছে যে যা চাইবে, আল্লাহ তা তাকে দেবেন। এ নামাজ আদায় করার তৌফিক আল্লাহ আমাদেরকে দান করুন। জুমা’র নামাজ আদায়ের লক্ষ্যে ওজু গোসল করে মসজিদের উদ্দেশ্যে রওনা হওয়ার পর  থেকে তার আমলনামায় ১বছরের নফল নামাজ ও রোজার নেকী লেখা শুরু হয়।
ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের গাড়ি পার্কিং : শনিবার সন্ধ্যা ৬ টা থেকে রোববার সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত সংশ্লিষ্ট এলাকায় আগত মুসল্লিদের গাড়ি পার্কিংয়ের জন্য ঢাকা পুলিশ হেডকোয়াটার্স ও গাজীপুর জেলা ট্রাফিক পুলিশের পক্ষ থেকে নির্দেশিকা প্রদান করা হয়েছে। বিশ্ব ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের যানবাহন পার্কিংয়ের জন্য স্থান নির্ধারণ করেছে ট্রাফিক বিভাগ: ঢাকা মহানগর এলাকা- (১) সাধারণ পার্কিং-১: উত্তরা রাজউক কলেজের আশেপাশে এবং ৬ ও ৮ নং সেক্টর, (২) সিলেট বিভাগ পার্কিং : উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টর, (৩) বরিশাল বিভাগ-ধউর ব্রীজ ক্রসিং সংলগ্ন পার্কিং (আশা বিশ্ব বিদ্যালয়ের খালি জায়গা) (৪) ঢাকা বিভাগ পার্কিং- উত্তরা সোনারগাও জনপথ সড়কের পূর্ব হতে পশ্চিম মাথা, (৫) খুলনা বিভাগ পার্কিং-উত্তরা ১০ ও ১১নং সেক্টরের সড়কের উভয়পাশে, (৬) রংপুর বিভাগ- প্রত্যাশা হাউজিং, (৭) চট্টগ্রাম বিভাগ- গাউসুল আজম এভিনিউ (১৩নং সেক্টর রোডের পূর্ব প্রান্ত হতে পশ্চিম প্রান্ত হয়ে গরীবে নেওয়াজ রোড), (৮) রাজশাহী বিভাগ পার্কিং- কামারপাড়া হাউজিং মাঠ ও উত্তরা ১০নং সেক্টরের খালি জায়গা। গাজীপুর জেলা- (১) টঙ্গীর কে-২/নেভি সিগারেট ফ্যাক্টরির পাশে, (২) কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলস গেট গ্যাপ ও পূর্ব পাশের ফাকা জায়গায়, (৩) কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিল প্রাঙ্গণ, (৪) মেঘনা টেক্সটাইল মিলের পাশের রাস্তার উভয়াপাশে (৫) সফিউদ্দিন সরকার একাডেমী মাঠ, (৬) সফিউদ্দিন সরকার মাঠের উত্তরপাশে টিআইসি মাঠ, (৭) জয়দেবপুর- চৌরাস্তা ট্রাকস্ট্যান্ড, (৮) চান্দনা-হাইস্কুল মাঠ ও (৯) ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ মাঠ। ঢাকা জেলা : আশুলিয়া কলেজ মাঠ ও আশুলিয়া হাইস্কুল মাঠ।

যেসব স্থানে গাড়ি পার্কিং নিষেধ : ঢাকার মহাখালি ক্রসিং থেকে টঙ্গী হয়ে গাজীপুর চৌরাস্তা পর্যন্ত মহাসড়কের দুইপাশ, উত্তরার আব্দুল্লাহপুর থেকে আশুলিয়ার বাইপাইল রাস্তার দুইপাশ, প্রগতি সরণীস্থ মধ্যবাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে প্রগতি সরণীস্থ সড়কের দুই পাশ।
ময়দানের আশপাশে ময়লার স্তুপ : ইজতেমা ময়দানের উত্তর পাশে টঙ্গী-আশুলিয়া রোডের ফুটপাতে, পশ্চিম ও দক্ষিণ দিকে তুরাগ নদীর তীরসংলগ্ন এলাকায় প্রথম পর্বে মুসল্লিদের ফেলে যাওয়া উচ্ছিষ্ট ও নানা ধরণের আর্বজনার স্তুপ রয়ে গেছে। সেগুলো থেকে উৎকট পুঁিতগন্ধ বের হচ্ছে যা মুসল্লিদের জন্য সম্পূর্ণ অস্বাস্থ্যকর।
ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে ৪ মুসল্লির মৃত্যু : বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে গত বুধবার রাত থেকে শুক্রবার সকাল ১১টা পর্যন্ত ৪ মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে।
জানা গেছে, গত বুধবার রাতে লক্ষ্মীপুর জেলার ডুমনি থানার মতৃ নুরুল ইসলামের ছেলে আবদুল কুদ্দুস (৬২) হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু বরণ করেন। এদিকে গত বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুক্রবার ১২টা পর্যন্ত পটুয়াখালীর মো. বিল্লাল হোসেন (৩০), বগুড়ার শাহজাহান পুরের আবদুর রহমান (৬৫) ও অজ্ঞাতনামা (৬৫) অপর এক মুসল্লি মারা যান।  বাদ ফজর ও বাদ জুমা  তাদের  নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হয়।
মোবাইল চার্জ ঘন্টা ২০টাকা : ইজতেমায় আগত মুসল্লিদের মধ্যে যাদের মোবাইলে চার্জ করা দরকার। প্রতিঘন্টা ২০টাকার বিনিময়ে চার্জ করা যাচ্ছে।

১বদনা পানি ১০টাকা : শুক্রবার ইজতেমা ময়দানের আশেপাশে প্রতি বদনা পানি ১০টাকা হারে বিক্রি করতে দেখা গেছে।

প্রতি পাতা পত্রিকা ১টাকা : জুমা নামাজে স্থান সংকুলান না হওয়ায় অনেক মুসল্লিকে ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়ক ও আশপাশের ফুটপাতে নামাজ পড়তে হয়েছে। এসময় তাদেরকে প্রতি পাতা পত্রিকা ১টাকা করে কিনে জায়নামাজের কাজ সারতে হয়েছে।