আজ রবিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১১:০২ পূর্বাহ্ন logo

মঙ্গলবার, ২১ Jul ২০১৫, ০২:২৯ অপরাহ্ন

১২ এজেন্সির ৭৮৫ জনের হজ পালনে অনিশ্চয়তা

 নিজস্ব প্রতিবেদক

জনতার নিউজ২৪ ডটকম

ঢাকা: সৌদি আরবে বাড়ি ভাড়া করার জন্য এখনো কোনো প্রতিনিধি না যাওয়ায় ১২ এজেন্সির ৭৮৫ জনের হজ পালন নিয়ে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

সৌদি আরবের জেদ্দার হজ অফিস থেকে পাঠানো এক চিঠিতে এ তথ্য জানা গেছে। এ চিঠির পরিপ্রেক্ষিতে ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে গত ১৬ জুলাই আশকোনা হজ অফিসের পরিচালক ও হজ এজেন্সিগুলোর সংগঠন হাবের (হজ এজেন্সিস এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ) কাছে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে চিঠি পাঠানো হয়।

কাউন্সিলর (হজ) মো. আসাদুজ্জামান স্বাক্ষরিত পাঠানো চিঠিতে বলা হয়, ২০১৫ সালের হজ কার্যক্রম পরিচালনাকারী ৭৮৭টি এজেন্সির মধ্যে ১২টির প্রতিনিধি এখনো সৌদি আরবে আসেননি। এ এজেন্সিগুলোর মাধ্যমে হজযাত্রীদের হজ পালন নিয়ে অনিশ্চয়তার কথা বলা হয়েছে চিঠিতে।

যে হজ এজেন্সিগুলোর প্রতিনিধিরা এখনো সৌদি আরবে গিয়ে বাড়ি ভাড়া করেননি তাদের মধ্যে রয়েছে, উইনস ট্রাভেলস এ্যান্ড ট্যুরস (হজযাত্রীর সংখ্যা ৫০ জন), এসিউরেন্স এয়ার সার্ভিস (৭০ জন), উইংস ট্রাভেলস এ্যান্ড ট্যুরস (৫০ জন), কসমিক এয়ার ইন্টারন্যাশনাল (৭৭ জন), ওয়ার্ল্ড লিঙ্ক ট্যুরস এ্যান্ড ট্রাভেলস (৬০ জন), গ্রিন এভিয়েশন (৭৬ জন), হাতিম ট্রাভেলস এ্যান্ড ট্যুরস (৫০ জন), মনির ট্যুরস এ্যান্ড ট্রাভেলস (৬৩ জন), মোবাশ্বিরাহ ট্রাভেল এ্যান্ড ট্যুরস (৫৬ জন), সুজন ট্রাভেল এ্যান্ড ট্যুরস (৫০ জন), সৌদি-বাংলা এয়ার সার্ভিস লিমিটেড (৫০ জন) ও মোসাফির ট্রাভেলস (৬৯ জন)।

সৌদি আরবে চাঁদ দেখা সাপেক্ষে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর (৯ জিলহজ ১৪৩৫ হিজরী) এ বছরের পবিত্র হজ অনুষ্ঠিত হবে। সৌদি আরব যাওয়ার ফ্লাইট শুরু হচ্ছে আগামী ১৬ আগস্ট। শেষ হবে ১৮ সেপ্টেম্বর। হজ শেষে ফিরতি ফ্লাইট ২৭ সেপ্টেম্বর শুরু হয়ে শেষ হবে ২৮ অক্টোবর।

এবার বাংলাদেশের হজযাত্রীর কোটা এক লাখ এক হাজার ৭৫৮ জন। এরমধ্যে ৫ হাজার সরকারি ব্যবস্থাপনায়, বাকিরা বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় এজেন্সির মাধ্যমে হজ পালন করবেন।

তবে এবার হজে যেতে আবেদনকারীর সংখ্যা কোটা অতিক্রম করেছে। অতিরিক্ত ২৫ হাজার হজযাত্রীর কোটা বৃদ্ধির সুপারিশ করেছিল বাংলাদেশ। কিন্তু হজযাত্রীর কোটা বৃদ্ধি করতে ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সুপারিশ ইতোমধ্যে নাকচ করে দিয়েছে সৌদি সরকার।

সৌদি আরবের ইলেকট্রনিক হজ ব্যবস্থাপনার কারণে এবার কয়েক মাস আগে টাকা জমা ও নিবন্ধনের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।