আজ রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৭, ০১:২৬ পূর্বাহ্ন logo

শুক্রবার, ২৪ Jul ২০১৫, ০৬:৪১ অপরাহ্ন

আমি নিজের নাটক দেখি না

ঈদ কেমন কাটল?

বরাবর যেমন কাটে। চাঁদরাত পর্যন্ত কাজ করেছি। তা-ও রাত তিনটা পর্যন্ত। তারপর বাসায় ফিরে একটু বিশ্রাম নিয়ে ঈদের নামাজ পড়তে গিয়েছিলাম। এরপর খাওয়াদাওয়া। মেহমানদারি। এই তো।

তাহলে তো বেশ ব্যস্ততার মধ্যেই ছিলেন?

ওই যে বললাম চাঁদরাত পর্যন্ত ব্যস্ত ছিলাম। জমজ ৩ নাটকের শুটিং করেছি। আসলে ঈদের সময়ই একটু বিশ্রাম করার সুযোগ পাই। তা-ও মাত্র তিন-চার দিন।

এই ফাঁকে কি নিজের অভিনীত নাটক দেখার সুযোগ হয়েছে?

সত্যি কথা বলতে কি আমি নিজের নাটক দেখি না। দেখি না বললে ভুল হবে, আমি আসলে খানিকটা ভয় পাই। কারণ হলো, অভিনয় তো আমার একটা কাজ। এটা যখন পর্দায় দেখি, তখন অনেক ভুল চোখে পড়ে। মনে হয়, এই শট বা দৃশ্যটা অন্য রকম করা যেত। যা এখন আর শোধরানোর সুযোগ নেই। এই ভয়েই আমার নাটক আমি কম দেখার চেষ্টা করি।

তারকা হওয়ার আগের ঈদ এবং পরের ঈদের পার্থক্যটা কেমন?

এই পার্থক্য গ্রামে গেলে চোখে পড়ে। অনেক দূর থেকে লোকজন আসেন। দেখা করেন, কথা বলেন, যা আগে কম হতো।

গ্রামে গিয়ে ঈদ করা হয়?

সব সময় হয় না। মাঝেমধ্যে যাই। সর্বশেষ বছর দুয়েক আগে গ্রামে ঈদ করেছি। চাঁদরাত পর্যন্ত কাজ করলে গ্রামে যাওয়ার সুযোগ কোথায়?

ঈদ উপলক্ষে তো অনেক নাটকে কাজ করেছেন। সেসব নাটকে অভিনয় করে কি আপনি তৃপ্ত?

এই প্রশ্নের উত্তরটা একটু অন্যভাবে দিই। যে সীমাবদ্ধতার মধ্যে আমরা কাজ করি, সেই সীমাবদ্ধতায় ভালো কাজ হওয়ার কথা নয়। কিন্তু হয়। কারণ, এই যে আমি রাত তিনটা পর্যন্ত ঈদের আগের দিন কাজ করলাম, তার কি দরকার আছে? যে ছেলেটা আমার সঙ্গে ক্যামেরা ধরে রাখল, লাইট ধরে রাখল, তারা কাজটা শেষ হলেই ঈদে বাড়ি যাওয়ার জন্য গাড়ি ধরবে। কখন পৌঁছবে কে জানে। তারা কেন এত রাত পর্যন্ত জেগে কাজ করবে? শুধু কাজটা ভালোবাসে বলে। এই জগৎটা ভালোবাসে বলে। যে পরিমাণ অর্থ একটা নাটকে লগ্নি হয়, তাতে ভালো কাজ হওয়া খুব কঠিন। কিন্তু কিছু স্বপ্নবান মানুষ এখনো ভালো কাজ করে যাচ্ছে। এই স্বপ্নবান মানুষগুলোর সঙ্গে কাজ করে অবশ্যই আমি তৃপ্ত।

তবুও তো এখনকার নাটক নিয়ে বেশ কথা উঠছে।

 তা তো উঠবেই। আমাদের তো নাটক দেখার সুযোগ দিতে হবে। পাশের দেশের চ্যানেলে কেন চলে যাচ্ছে সবাই। কারণ, তারা দেখার সুযোগ করে দিচ্ছে। আমরা দিচ্ছি না। এখন নাটকের সৌজন্যে বিজ্ঞাপন দেয়, নাকি বিজ্ঞাপনের সৌজন্যে নাটক দেখানো হয়, বোঝা কঠিন। মোদ্দা কথা, সবার আগে দরকার দেশপ্রেম। এই প্রেমটা তৈরি হলে আমরা ব্যবসা বুঝব, ভালো কাজের মূল্য বুঝব।

সূত্র- প্রথম আলো