আজ সোমবার, ২৬ Jun ২০১৭, ১১:১৭ পূর্বাহ্ন logo

মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৫, ০৮:৩৫ অপরাহ্ন

টাঙ্গাইলে বিরল এক শিশুর জন্ম

জিয়া হোসেন,

টাঙ্গাইল প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইলে মা’য়ের অজান্তে বাঘের মত দেখতে বিরল প্রজাতির এক শিশু বাচ্চার জন্ম দিয়েছেন মা। শিশুটির আকৃতি পশুর মতো হলেও নড়া-চড়া ও মায়ের দুধ পান সহ শব্দ মানুষের মতো করতে পারে। এ শিশুটি জম্ম হওয়ায় পর শিশুটির পিতাসহ পরিবারের সকলেই ভীত ও কান্নাকাটি শুরু করেছে। শিশুটির মা নিথর ভাবে হাসপাতালের বেডে শুয়ে আছে। এ শিশু জম্মের মধ্যে দিয়ে উভয় পরিবারের মধ্যে চলছে দন্ধ । শুধু মাত্র শিশুটির নানী ছাড়া অন্য কেউ শিশুটির পাশে বা দেখতে আসছেন না। হাসপাতাল কতৃপক্ষের ধারনা এটা একটি রোগ এতে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। তবে শিশুটির অবস্থা আশংকাজনক। এ খবর ছড়িয়ে পরলে শিশুটিকে দেখতে সহ্রাধিক লোক হাসপাতালে ভিড় জমায়।  পরে হাসপাতাল কতৃপক্ষ শিশুটির অবস্থা আশংকা জনক হওয়ায় মঙ্গলবার সকালে ঢাকা রের্ফাড করেন। ঘটনাটি ঘটেছে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। এ ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে সোমবার দুপুর ১ টা ৩০ মিনিটি ১ নং ওয়ার্ডের ওটি রুমে স্বাভাবিক ভাবে জন্ম  হয় শিশুটির। শিশুটির মায়ের নাম  ছালেহা (২০)। পিতার নাম রফিক। বাড়ী টাঙ্গাইল সদর উপজেলার বরুহা এলাকায়। বাঘের মত দেখতে হাত, পা, মুখ চোখ এমনকি শরিরের চামড়াও ।
ঘটনাটি জানাজানি হওয়ার পর মঙ্গলবার  টাঙ্গাইল মেডিকেলে হাসপাতালে  সাধারণ জনগন আসতে থাকে শিশুটিকে দেখার জন্য মানুষ ভীড় করে এবং মোবাইলে মোবাইলে ছবি তুলে তা মুর্হুতের মধ্যে ছড়িয়ে পড়লে মানুষের মধ্যে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

১ নং ওয়াডের বাচ্চা শ্রবন করার অফিসার ইনসার্চ জানান, বাঘের মত দেখতে হাত, পা, মুখ চোখ , সারা শরীরে লাল রেখাকৃতি এক পুত্র শিশুর জন্ম গ্রহন করে। এই ঘটনাটি এভারই প্রথম ঘটেছে। আমরা কিছুটাও অবাক হয়েছি।

এ বিষয়ে টাঙ্গাইল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জুনিয়র কনসাল্টেন্ট নাজমা খলিল জানান, সালেহা বেগমের তল পেটে ব্যাথা হয়েছে এই চিন্তা করে হাসপাতালে ডাক্তার দেখাতে এসেছে। সব কিছু চেকাপ করে দেখা যায় তার পেটে ৯ মাসের সন্তান। সালমা এ সন্তানের ব্যাপারে কিছুই জানত না। ২৮ সেপ্টেম্বর  সোমবার বাচ্চা প্রসব করার জন্য ভর্তি হয়।  সোমবার বাচ্চাটি জন্ম গ্রহন করলে দেখা যায় দুই হাত, দুই পা বিশিষ্ট শিশুর বড় বড় দুইটি চোখ লাল গোলাকার, মুখমন্ডল গোলাকৃতি ও মুখ বড়। ঠোট দুই মোটা ও মুখে বড় বড় দুইট দাঁত রয়েছে।  পরে  শিশুকে প্রসবের পরপরই মা  ও শিশুকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে।