আজ সোমবার, ২৪ Jul ২০১৭, ০৮:৫১ অপরাহ্ন logo

বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০১৫, ০১:২৯ অপরাহ্ন

সাংবাদিক ছাঁটাই ও হয়রানি বন্ধে ডিইউজের হুঁশিয়ারি

নিজস্ব প্রতিবেদক

জনতার নিউজ২৪ ডটকম

ঢাকা: বৈশাখী টেলিভিশনসহ কয়েকটি গণমাধ্যমে সাংবাদিক ছাঁটাই, বাধ্যতামুলক ছুটি গ্রহণের অন্যায় চাপ ও চাকরিচ্যুতির হুমকির ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে, একাংশ)

একইসঙ্গে এসব গণমাধ্যমের মালিকপক্ষকে অবিলম্বে আইন মেনে পদক্ষেপ গ্রহণের আহ্বান জানিয়েছে সাংবাদিকদের এ সংগঠন। অন্যথায় যে কোনো ধরনের উদ্ভুত পরিস্থিতির দায় মালিকপক্ষকে নিতে হবে বলে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে ডিইউজের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আতিকুর রহমান চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক কুদ্দুস আফ্রাদ উদ্বেগ প্রকাশ করে এসব কথা বলেন।

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বেসরকারি টেলিভিশন বৈশাখীতে কিছুদিন ধরে বিনা নোটিশে সাংবাদিক ছাঁটাই, বাধ্যতামুলক ছুটি এবং নানা বাহানায় সাংবাদিকদের হয়রানি ও নির্যাতনের অভিযোগ পাওয়া গেছে। প্রতিষ্ঠানটি থেকে ইতোমধ্যে বেশ কয়েকজন সিনিয়র সাংবাদিকসহ অন্তত ১০ জনকে চাকরিচ্যুত করা হয়েছে। আর এ অন্যায় কাজে মালিককে মদদ দেওয়ার ক্ষেত্রে ওই প্রতিষ্ঠানে কর্মরত কয়েকজনের বিরুদ্ধেও অভিযোগ রয়েছে।’

এ ঘটনায় মালিকপক্ষকে হুঁশিয়ারি দিয়ে ডিইউজের বিবৃতিতে বলা হয়, ‘শ্রম আইনের বরখেলাপ করে সাংবাদিক ছাঁটাই ও নির্যাতন বন্ধ করা না হলে সাংবাদিক সমাজ বৃহত্তর কর্মসূচি নিতে বাধ্য হবে।’

অপর এক বিবৃতিতে ডিইউজের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সদস্য ও দৈনিক যুগান্তরের ইকোনোমিক এডিটর হেলালউদ্দিন কিছুদিন আগে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সংবাদ সম্মেলনে একটি বিষয়ে জানার জন্য প্রশ্ন করে বোর্ডের এক শীর্ষ কর্মকর্তার রোষাণলে পড়েন।’

সাংবাদিক সংগঠনটির পক্ষ থেকে বলা হয়, ‘অভিযোগ উঠেছে, হেলালউদ্দিনকে চাকরিচ্যুত করতে ওই কর্মকর্তা যুগান্তর কর্তৃপক্ষের উপর চাপ প্রয়োগ করছেন। তাছাড়া সরকারি প্রভাব ব্যবহার করে হেলালউদ্দিনকে মানসিকভাবে হয়রানির অভিযোগও পাওয়া গেছে।’

অভিযুক্ত ওই এনবিআর কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের আহ্বান জানিয়ে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের ক্ষমতার অপব্যবহারকারী বিশেষ এ গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। কারও অন্যায় চাপের মুখে কোনো সাংবাদিক চাকরিচ্যুত হলে তার দায়ভার সরকারের উপর বর্তাবে।’