আজ রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৭, ০৫:৫৮ অপরাহ্ন logo

সোমবার, ২২ মে ২০১৭, ০২:৪৩ অপরাহ্ন

কেরানীগঞ্জে যৌতুকের বলি হলেন নববধূ

নিউজডেস্ক

 

জনতার নিউজ২৪ ডটকম :

শ্বশুর বাড়ি যৌতুকের দাবি না মেটানোয় তরুণী নববধূ বিথী আক্তারকে (১৮) শ্বাসরোধে হত্যা করেছে পাষণ্ড স্বামী। 
  
সোমবার সকালে কেরানীগঞ্জের জিনজিরা নামাবাড়ির একটি ভাড়া বাসা থেকে ওই তরুণী গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। 
  
ঘটনার পর থেকে স্বামী নাদিম হোসেন (২২) পলাতক রয়েছে। তবে নাদিমের মা রোকেয়া বেগম ও ননদ ফারজানা আক্তারকে আটক করেছে পুলিশ। 
  
নিহত বিথীর বাবা জাহিদ হোসেনের অভিযোগ, জামাইয়ের দাবি করা যৌতুকের টাকা দিতে না পারায় মেয়েকে হত্যা করেছে তার স্বামী। 
  
জানা গেছে, জিনজিরা নামাবাড়ী এলাকায় পাশাপাশি থাকার সুবাদে বিথীর সঙ্গে নাদিমের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। দুই পরিবারের অসম্মতিতে তারা ১০ মাস আগে পালিয়ে বিয়ে করে। এরপর নামাবাড়ি এলাকায় জনৈক স্বপনের বাড়িতে নবদম্পত্তি ভাড়া বাসায় উঠেন। তখন নাদিম তার মা ও বোনকে নতুন বাসায় নিয়ে আসে। 
  
বিথীর পারিবারিক সূত্র জানায়, বিয়ের পর নাদিম সৌদি আরব যাওয়ার কথা বলে শ্বশুর বাড়ি থেকে ৫ লাখ টাকা যৌতুক দাবি করে। প্রায়ই ফোন করে তাদের কাছে এ টাকা চাইত নাদিম। অন্যথায় বিথীকে তাদের কাছে ফেরত পাঠানোরও হুমকি দেয়। 
  
কেরানীগঞ্জ মডেল থানার ওসি শাকের মোহাম্মদ যোবায়ের জানান, যৌতুকের দাবিতে মেয়েকে হত্যার অভিযোগে বাবা জাহিদ হোসেন একটি মামলা করেছেন। নাদিমের মা ও ননদকে আটক করা হয়েছে। নাদিমকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।