আজ রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:০৭ পূর্বাহ্ন logo

সোমবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৭, ১০:২০ অপরাহ্ন

অভিনয়ে আসব, এটা কখনো চিন্তাও করিনি- আনোয়ার

ভিনেতা ও মডেল আনোয়ার হোসেন। এশিয়ান টিভিতে প্রচারিত হচ্ছে তার অভিনীত ধারাবাহিক নাটক ‘চৌধুরী অ্যান্ড সন্স’। অভিনয় জীবনের শুরু, বর্তমান ব্যস্ততা ও অন্যান্য বিষয়ে কথা

হয় তার সঙ্গে।

অভিনয়ে আসার গল্পটা জানতে চাই...

অভিনয়ে আসব, এটা কখনো চিন্তাও করিনি। ২০০৬ সালে আমাদের কলেজে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনেকটা দুষ্টুমি করেই সেখানে নাম দিই। সে সময় এক ভণ্ড পীরের চরিত্রে অভিনয় করেছিলাম। প্রতিযোগিতায় আমি প্রথম হই। পরে কলেজের স্যার, ম্যাডাম ও বন্ধুরা অনেক প্রশংসা করেন। তখন থেকেই অভিনয়ের ইচ্ছা মনে লালন করতে শুরু করি। তারপর একদিন এক বিজ্ঞাপনে দেখলাম, টিভিতে অভিনয়ের জন্য নতুন মুখ প্রয়োজন। তখন সেখানে অডিশনে অংশ নিই এবং সিলেক্ট হই। পরে পরিচালক আক্তারুজ্জামান তুহিনের ‘স্বপ্ন’ নাটকে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করি।

‘চৌধুরী অ্যান্ড সন্স’ নাটকটি নিয়ে দর্শক প্রতিক্রিয়া কেমন?

সপ্তাহের প্রতি রবি ও সোমবার রাত ৮টায় নাটকটি প্রচারিত হয় এশিয়ান টিভিতে। মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ পরিচালিত এ নাটকে আমি হাসান নামের এক খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করেছি। নাটকটি প্রচারের পর থেকে বন্ধু, মিডিয়ার সহকর্মী ও পরিচিতজনদের ব্যাপক প্রশংসা পাচ্ছি।

নতুন অভিনতো হিসেবে কাজ করতে গিয়ে কী কী সমস্যার সম্মুখীন হতে হয়?

নতুন বলে অনেকে এক অথবা দুটি দৃশ্যের জন্য ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসিয়ে রাখেন। আর সবাই চান, বিনা পারিশ্রমিকে কাজ করিয়ে নিতে। কাজ করতে কোনো সমস্যা নেই, তবে প্রাপ্ত সম্মানটুকু তো দেখানো উচিত, তাই না? তবে সাময়িকভাবে কষ্ট পেলেও পরে আবার মনে করি, এখানে স্বপ্ন নিয়ে কাজ করতে এসেছি। আর এখানে ভালো অভিনেতা হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হতে চাই। সে ক্ষেত্রে কাছের কিছু মানুষ আছেন, যারা আমাকে সব সময় সাপোর্ট করেন।

আপনার অভিনীত চরিত্রগুলো বেশিরভাগই হাস্যরসাত্মক, মানুষ হাসানো তো কঠিন কাজ। আপনি এটা করেন কীভাবে?

বাস্তবেও আমি অনেক হাসিখুশি। বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডায় আমি থাকি সবার মধ্যমণি। কারো মন খারাপ দেখলে আমার খুব কষ্ট লাগে। আমার অভিনীত নাটকগুলোতেও হাসির চরিত্রে কাজ করি বলে সে ক্ষেত্রে অনেকটা সহজ হয়ে যায়।

সূত্র : দৈনিক আমাদের সময়