আজ শনিবার, ১৯ অগাস্ট ২০১৭, ০৩:২৬ অপরাহ্ন logo

মঙ্গলবার, ০৭ মার্চ ২০১৭, ০৫:৪৮ অপরাহ্ন

আমি সব সময় কোয়ান্টিটির চেয়ে কোয়ালিটিকে প্রাধাণ্য দেই - ইসমত আরা লেমন

অভিনয় ও মডেলিংয়ের জগতে ধীর পায়ে হেঁটে চলছেন ইসমত আরা লেমন। গ্ল্যামার আর শৈল্পিক গুনাবলীর সুবাদে ইতোমধ্যেই শোবিজের ঝলমলে ভুবনে নিজের একটি সুন্দর অবস্থানও তৈরি করতে সক্ষম হয়েছেন প্রতিশ্রুতিশীল এই মডেল কাম অভিনেত্রী। সজল, আমিন খানসহ তারকা নায়কদের সাথে জুটিবদ্ধ হয়ে ইতোমধ্যে নিজেকে তুলে ধরেছেন সম্ভাবনার দুয়ারে। অভিনয়ের পাশাপাশি নিজের প্রযোজনা সংস্থা লাইমলাইট এন্টারটেইনমেন্ট প্রোডাকশন্স হাউজ থেকে বেশ কয়েকটি নাটক ও টেলিফিল্মও নির্মাণ করেছেন তিনি। এর মধ্যে ‘লাভস্পিড’ নামের একটি ত্রিভুজ প্রেমের একটি টেলিফিল্মে চিত্রনায়িকা পপির সাথে প্যারালাল চরিত্রে অভিনয় করে নিজেকে এগিয়ে নিয়েছেন সামনের দিকে। এই টেলিফ্লিমটিতে অভিনয়ের পর শোবিজের ভুবনে তার ব্যস্ততা ক্রমশ বাড়তে শুরু করেছে। তবে কোয়ান্টিটির চেয়ে কোয়ালিটিতে বিশ্বাসী লেমন গল্প ও চরিত্রকে প্রাধান্য দিয়েই কাজ করছেন। সম্প্রতি কথা হয় এই অভিনেত্রী ও মডেলের সাথে...........

* শোবিজের ঝলমলে ভুবনের পথচলার গল্পটা একটু বলবেন কী?

খুব ছোটবেলা থেকেই মিডিয়ার প্রতি আমার আগ্রহ ছিলো। ছোট বেলায় মৌসুমী আপু, শাবনুর আপু,বিপাশা আপু. তারিন আপু, মৌ আপুদেরকে টিভিতে দেখেই মিডিয়ার প্রতি আমার আগ্রহ তৈরি হয়। পরবর্তীতে আমার জীবনে সুযোগ এসে যায়। কিন্তু পড়াশোনার কারনে তখন এই পথে পা বাড়াইনি। পড়াশোনার ব্যস্ততা এখন নেই। শৈশবে অনেকে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার হবার স্বপ্ন দেখে কিন্তু আমি শোবিজের ঝলমলে ভুবনে কাজ করার স্বপ্ন দেখতাম।

* আপনিতো টেলিটক, রিয়েল চাটনী, চরকা ওয়াশিং পাউডার, কোকোলা নুডুলসসহ বেশ কয়েকটি পণ্যের বিজ্ঞাপনে মডেলিং করেছেন। এরপরে নাটকের সাথেও সম্পৃক্ত হয়েছিলেন। কিন্তু মাঝপথে কিছুটা বিরতি দিলেন কেন?

আসলে পড়াশোনার কারনেই বিরতি দিতে হয়েছে। আমার ফ্যামিলির কড়া নির্দেশ ছিলো মিডিয়াতে কাজ করো আর যাই করো আগে পড়াশোনাটা শেষ করো। এছাড়া আমিও পড়াশোনাটাকেও প্রাধাণ্য দিতাম। মিডিয়াতে পুরোপুরি ব্যস্ত হয়ে পড়লে পড়াশোনায় ব্যাঘাত ঘটবে বলে বিরতি দিয়েছিলাম।

*একসময়ের তারকা নায়িকা পপির সাথে ‘লাভস্পিড’ নামের একটি টেলিফিল্মে প্যারালাল চরিত্রে অভিনয় করেছেন। এ প্রসঙ্গে  কিছু বলুন...

অসম্ভব শৈল্পিক মানসম্পন্ন একটি টেলিফিল্ম ছিলো ‘লাভস্পিড’। পপি আপুর মতো সিনিয়র তারকার সাথে অভিনয় করতে গিয়ে আমার অভিজ্ঞতার ঝুলিটাও অনেক সমৃদ্ধ হয়েছে। আমি ও পপি আপু দুজনেই ছিলাম আমিন খানের নায়িকা। ত্রিভুজ প্রেমের গল্প নিয়েই এটি নির্মিত হয়েছে। আসন্ন ঈদুল আযহায় টেলিফিল্মটি এটিএন বাংলায় প্রচার হবে। এটি আমার ক্যারিয়ারের জন্য বিরাট একটা টার্ণিং পয়েন্ট বলেই আমি মনে করি।

* চলচ্চিত্রের প্রতি আগ্রহ আছে কিনা?

শোবিজের সবচেয়ে শক্তিশালী মাধ্যম হচ্ছে চলচ্চিত্র। চলচ্চিত্রের প্রতি আগ্রহ সব শিল্পীরই থাকে। চলচ্চিত্রে কাজ না করলে কোন শিল্পীর জীবনেই পূর্ণতা আসেনা। চলচ্চিত্রই একজন শিল্পীকে অনেক দিন বাঁচিয়ে রাখে। প্রতিনিয়ত অফারও পাচ্ছি। কিন্তু ব্যাটে-বলে মিলছেনা বলে কাজ করা সম্ভব হচ্ছেনা। শুরুটা ভালোভাবেই করতে চাই। যেনতেন দশ/বিশটি ছবিতে অভিনয়ের চেয়ে মানসম্পন্ন দু/একটি চলচ্চিত্রে অভিনয় করবো। আমি সব সময় কোয়ান্টিটির চেয়ে কোয়ালিটিকে প্রাধাণ্য দেই।

* ভবিষ্যত পরিকল্পনা কী?

শিল্পমানসম্পন্ন ভালো কিছু কাজ করে দর্শকদের হৃদয়ে নিজের একটা জায়গা করে নিতে চাই। এছাড়া সামাজিক জীব হিসেবে সমাজকল্যানের কিছু কাজও করে  যেতে চাই। প্রতিটি শিল্পীরইসোশ্যাল কমিটমেন্ট থাকা উচিৎ ।