আজ বৃহস্পতিবার, ২০ Jul ২০১৭, ০৬:৩৮ অপরাহ্ন logo

শুক্রবার, ১৪ Jul ২০১৭, ০৭:৫২ অপরাহ্ন

গুম নয় অনেকে স্ব-ইচ্ছায় নিখোঁজ: হাছান মাহমুদ

নিউজডেস্ক

জনতার নিউজ২৪ ডটকম :আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, গুমের যে তালিকা বিএনপি প্রকাশ করেছে তাদের অনেকেই স্ব-ইচ্ছায় নিখোঁজ। অনেকেই বিভিন্ন মামলার কারণে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

শুক্রবার দুপুরে সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি মিলনায়তনে জাতীয় গণতান্ত্রিক লীগ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে জঙ্গিবাদ ছড়িয়ে পড়েছে আর তা মোকাবেলা করতে সেসব দেশের সকল রাজনৈতিক দল ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করছে কিন্তু আমাদের দেশের একটি দল তা প্রতিহত না করে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, খালেদা জিয়া পুত্রের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছেন। আরো কাদের সঙ্গে দেখা করতে যাচ্ছেন সেখবর আমাদের কাছে আছে। একটু আগে শামা ওবায়েদ বলেছেন যে, তিনি যখন বিদেশ যান তখন একটা প্রেসক্রিপশন নিয়ে আসেন এবং সন্ত্রাসবাদ চালান। বলে রাখি, এইবার যদি বিশৃঙ্খলা করেন তাহলে এদেশের মানুষ দাঁতভাঙা জবাব দেবে। রাজনীতির চিরবিদায় দিবে।

অনুষ্ঠানের বিশেষ অতিথি অধ্যাপক ড. শাহেদা ওবায়েদ বলেন, আমার স্বামী ওবায়দুর রহমান পরবর্তীতে বিএনপি করেছেন কিন্তু তার রাজনীতি শুরু হয়েছিল বঙ্গবন্ধুর হাত ধরে আওয়ামী লীগ দিয়ে। সে কারণে আমাকে অনেকে বিএনপির ব্রেকেটে ফেলে দেন কিন্তু আমি আজ আবধি আমি কোনো রাজনৈতিক দলের প্রাথমিক সদস্যও না। কাল কি হবে জানি না।

শাহেদা ওবায়েদ আরো বলেন, ‘‌আমার মেয়ে বিএনপি করে এটা সত্য। চল্লিশ বছরের একটা মেয়ে কি করবে কোন রাজনীতি করবে সেটা তার ব্যাপার কিন্তু জেনে রাখা ভাল তাত শ্বশুর আওয়ামী লীগ করেন, শ্বশুরের পরিবারের সবাই আওয়ামী লীগ করেন।’

জামায়াতের গাড়িতে জাতীয় পতাকা তুলে দিয়ে দেশে সন্ত্রাস বাদের শুরু করেছিলে এমন বক্তব্য তুলে ধরে শাহেদা ওবায়েদ বলেন, আমি মুক্তিযুদ্ধের সময় ঢাকা কলেজে প্রভাষক হিসেবে যোগ দেই। তখন দেখেছি ওই জামায়াতের নেতারা কীভাবে যুদ্ধাপরাধ করেছে, মানবতাবিরোধী অপরাধ করেছে। সেই জাতীয় মানবতাবিরোধীদের গাড়িতে জাতীয় পতাকা তুলে দিয়ে সন্ত্রাসবাদের শুরু করেছিলেন।

বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন সফর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, তিনি যখনেই বাইরে যান তখনই একটা প্রেসক্রিপশন নিয়ে আসেন। এবং দেশে এসে নৈরাজ্য চালান।এইবারও হয়তো তিনি ডিজিটাল প্রশিক্ষণ নিয়ে এসে হত্যা, নৈরাজ্য ও সন্ত্রাসবাদ চালাবেন।

‘অস্তিত্ব রক্ষার জন্য হলেও আগামী নির্বাচনে আসবে। কারণ গত নির্বাচনে এসে তারা যে ভুল করেছে এইবার সেটা করবে না’ বলেন তিনি।

এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য প্রদান করেন বরিশাল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তালুকদার মোহাম্মদ ইউনুছ এমপি, তাঁতী লীগের কার্যকরী সভাপতি সাধনা দাস গুপ্ত।