বাড়ি বানাচ্ছেন বিএনপি নেতা, ১২ ছাত্রলীগকর্মীর চাঁদা দাবি, মামলা

বাড়ি বানাচ্ছেন বিএনপি নেতা, ১২ ছাত্রলীগকর্মীর চাঁদা দাবি, মামলা

বগুড়ার নন্দীগ্রাম উপজেলার পল্লীতে এক বিএনপি নেতার বাড়ির নির্মাণকাজে চাঁদা দাবি করার অভিযোগ এনে ১২ জন ছাত্রলীগকর্মীর নামে মামলা করা হয়েছে। এ মামলার এজাহারভুক্ত দুজন আসামিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

আজ শনিবার সকালে নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম মামলার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন। গতকাল শুক্রবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাতে সদর ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে এ মামলা করেন।

গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন- উপজেলার ছোট ডেরাহাড় গ্রামের আব্দুস সামাদ ও আতোয়ার রহমান।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, নন্দীগ্রাম সদর ইউনিয়নের ছোট ডেরাহাড় গ্রামের ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ ইট দিয়ে বাড়ি নির্মাণ করছিলেন। গত শুক্রবার সন্ধ্যায় ছাত্রলীগ কর্মী আল-জাহিদসহ ১২ জন সেখানে গিয়ে ৩০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। এই টাকা না দিলে বাড়ি নির্মাণ করতে বাধা দেন তারা। এ নিয়ে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে বিএনপি নেতা আব্দুর রশিদের ভাতিজা সোহান আলীকে মারধর করেন তারা। পরে আহত সোহান আলীকে (২৫) উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় সদর ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আব্দুর রশিদ বাদী হয়ে উপজেলা স্বেচ্ছা সেবকলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক ও ছাত্রলীগকর্মী আল-জাহিদসহ ১২ জনের বিরুদ্ধে নন্দীগ্রাম থানায় চাঁদাবাজি মামলা করেছেন।

এ বিষয়ে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তুহিন আহমেদ বলেন, চাঁদাবাজী ঘটনা মিথ্যা। ষড়যন্ত্রমূলকভাবে এ মামলা করা হয়েছে। আর তারা ছাত্রলীগের কর্মী, কোনো পদে নেই।

নন্দীগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) কামরুল ইসলাম বলেন, চাঁদাবাজি মামলায় দুজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এজাহারভুক্ত আসামিদের গ্রেপ্তার করতে পুলিশ মাঠে রয়েছে

kaler kantha

Top 8 সারাদেশ