বৈদেশিক মুদ্রা ও মাদক মামলায় ক্যাসিনো খালেদের বিচার শুরু

বৈদেশিক মুদ্রা ও মাদক মামলায় ক্যাসিনো খালেদের বিচার শুরু

বৈদেশিক মুদ্রা নিয়ন্ত্রণ আইন ও মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে হওয়া পৃথক দুই মামলায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের বহিষ্কৃত সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়া ওরফে ক্যাসিনো খালেদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত।

এর মধ্য দিয়ে এ দুই মামলার আনুষ্ঠানিক বিচারকাজ শুরু হলো।

আজ রবিবার (২১ মার্চ) ঢাকার অতিরিক্ত তৃতীয় মহানগর দায়রা জজ রবিউল আলমের আদালত আসামির অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ গঠনের এ আদেশ দেন। একইসঙ্গে দুই মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী ১ জুন দিন ধার্য করেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের অতিরিক্ত সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) সাবিনা আক্তার দিবা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে আসামি খালেদকে কারাগার থেকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর তাঁর উপস্থিতিতে দুই মামলার অভিযোগগঠন শুনানি শুরু হয়। এসময় আসামি পক্ষের আইনজীবী খালেদকে নির্দোষ দাবি করে মামলা থেকে অব্যাহতির জন্য আবেদন করেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষ অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ গঠনের আদেশ দেন।

২০১৯ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর ঢাকা দক্ষিণ মহানগর যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার গুলশানের বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)। ওই বাসা থেকে ৬টি দেশের মুদ্রা জব্দ করা হয়। এর মধ্যে সিঙ্গাপুরের ১০ হাজার ৫০ ডলার, থাইল্যান্ডের ১০ হাজার ৪৯০ বাথ, ভারতীয় সাড়ে তিন হাজার রুপি, সৌদি আরবের দুই হাজার ৩২১ রিয়াল, মালয়েশিয়ান ৬৫৬ রিঙ্গিত ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ৭৫ দিরহাম ছিল।

অবৈধ জুয়া ও ক্যাসিনো চালানোর অভিযোগে ওইদিন  খালেদকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব। গুলশানে তাঁর বাড়ি থেকে একটি শটগান, দুটি পিস্তল, শটগানের ৫৭টি গুলি ও ৫৮৫টি ইয়াবা জব্দ করা হয়। পরে যুবলীগ থেকে তাঁকে বহিষ্কার করা হয়।

Top 8 আইন আদালাত জাতীয়