গণপরিবহনে ভাড়া দ্বিগুণ, ভোগান্তিও দ্বিগুণ!

গণপরিবহনে ভাড়া দ্বিগুণ, ভোগান্তিও দ্বিগুণ!

করোনায় স্বাস্থ্যবিধি উপেক্ষা করে ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কে চলছে গণপরিবহন। আগের মতোই টিকিট বিক্রি করছে কাউন্টারের লোকজন। নিয়ম না মেনে সব আসনেই লোক নিলেও ভাড়া নিচ্ছে দ্বিগুণ। সরকারি ৬০ শতাংশ ভাড়া বৃদ্ধি করে নিয়ম চালু করলেও তারা ভাড়া বাড়িয়েছে ১০০ শতাংশ। এদিকে আবার বেশিরভাগ যাত্রীরাও স্বাস্থ্যবিধি মানছেন না। ফলে করোনার ঝুঁকি বাড়ার আশঙ্কা থেকেই যাচ্ছে।

বুধবার সকালে নান্দাইল ও ঈশ্বরগঞ্জ এলাকার বাসস্ট্যান্ডে গিয়ে দেখা গেছে, ময়মনসিংহ-কিশোরগঞ্জ মহাসড়কের এমকে সুপার, শ্যামল ছায়া ছাড়াও বিভিন্ন ধরনের গণপরিবহনের যাত্রী আসনের অবস্থা বেহাল। একে অপরের কাঁধে ঝুলিয়ে, ইঞ্জিন কভারসহ সব আসনগুলোয় যত্রী বসা। আর করোনা পরিস্থিতির দোহাই দিয়ে দ্বিগুণ ভাড়া হাতিয়ে নিচ্ছে। এ ছাড়াও চালক, হেলপার রাস্তার যাত্রীদের ডেকে ডেকে গাড়িতে তুলতেও দেখা গেছে। যাত্রীরাও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে একেবারে উদাসীন।

শ্যামল ছায়া বাসের যাত্রী আলী এহসান জানান, একটি আসনের পর যাত্রী বসানোর কথা কিন্তু পরিবহনের সুপারভাইজার ও হেলপার তা মানছে না। এছাড়া বাড়তি ভাড়া দিতে হচ্ছে। এতে ভোগান্তি বেড়েছে দ্বিগুণ। স্বাস্থ্যবিধি যদি না মানা হয় তবে আগের ভাড়া নেওয়া হউক।

কয়েকটি বাসের সুপারভাইজাররা জানান, সরকারের দেওয়া ভাড়াই নেওয়া হচ্ছে। তবে যাত্রীরা অযথা তর্কে লিপ্ত হচ্ছে। তাই বাধ্য হয়েই বাসে ওঠানো হচ্ছে।

এ বিষয়ে নান্দাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এরশাদ উদ্দিন ও ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. জাকির হোসেন জানান, নিয়ম মানতে বাধ্য করতে এরই মধ্যে একটি টিম মাঠে কাজ করছে।

Top 8 সারাদেশ