বোনকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হওয়া ভাই পেল ইতিহাসের সর্বাধিক প্রাপ্য বক্সিং বেল্ট

বোনকে বাঁচাতে গিয়ে আহত হওয়া ভাই পেল ইতিহাসের সর্বাধিক প্রাপ্য বক্সিং বেল্ট

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের উয়োমিং রাজ্যের বাসিন্দা ছয় বছর বয়সী ব্রিজার ওয়ালকার। মাত্র ছয় বছর বয়সী ব্রিজার তার চার বছরের বোনকে বাঁচাতে নিজের জীবন বাজি রেখেছিল। হিংস্র কুকুরের হাত থেকে তার বোনকে বাঁচাতে গিয়ে ব্রিজারের মুখে ৯০টি সেলাই লেগেছিল। তার এই ঘটনা তখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়। এর পর থেকে তার প্রশংসায় ভাসে পুরো বিশ্বের মানুষ। এমনকি হলিউডের নামি দামি সুপার হিরোরাও ব্রিজারের প্রশংসা করে সামাজিক মাধ্যমে তাকে ‘রিয়েল হিরো’ উল্লেখ করে পোস্ট দেন।

এবার ব্রিজারের কৃতিত্বের সম্মাননা দিয়েছে ওয়ার্ল্ড বক্সিং কাউন্সিল (ডাব্লুবিসি)। তাকে আজীবন বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হিসাবে স্বীকৃতি দিয়েছে সংস্থাটি। সেদিনের সাহসীকতার জন্য বিশ্বের সেরা যোদ্ধার অফিসিয়াল ডাব্লুবিসি ঐতিহাসিক রেকর্ডেও নাম অন্তর্ভুক্ত হয়েছে তার। এমনকি ইতিহাসের সর্বাধিক প্রাপ্য বেল্টটি ব্রিজার ওয়াকারকে দেওয়া হয়েছে।

এক বছর আগে একটি জার্মান শেফার্ড কুকুর ব্রিজারের বোনকে আক্রমণ করলে ব্রিজার আগে পরে না ভেবে ঝাঁপিয়ে পড়ে। বোনকে বাঁচাতে সে নিজেকে এগিয়ে দেয়। কুকুরটি তার গালে থাবা বসায়। এতে ভয়ানক জখম হয় ব্রিজার। কিন্তু সে পিছিয়ে আসেনি। বোনকে বাঁচিয়েছে। নাহলে আরো বড় বিপদ হতে পারত। কিন্তু এক মিনিটের জন্য সে ভয় পায়নি। দুই ঘণ্টার সার্জারি হয় তার। কিন্তু তাতে তার বিন্দুমাত্র পরোয়া নেই। উল্টে সে নিজের বাবাকে বলেছে, ‘এই কুকুরের হামলায় যদি কারো মৃত্যু হত তাহলে সেটা আমি হতাম। বোন নয়।’ এমন কথা শোনার পর ব্রিজারের বাবা আর একটি কথাও বাড়াননি।

সূত্র: সিএনএন।

Top 8 আন্তর্জাতিক